5 Homemade Hair Mask for Hair Fall – মজবুত চুল পেতে ট্রাই করুন হেয়ার ফল ট্রিটমেন্ট মাস্ক!

5 Homemade Hair Mask for Hair Fall-Saajkonna.com

আপনি যেখানেই যান না কেন, মনে হচ্ছে আপনি আপনার চিহ্ন রেখে সেখানেই রেখে আসছেন। মানে সব জায়গাতেই আপনার চুল! যতবার চুলে হাত দিচ্ছেন ঠিক ততবারই অনেকগুলো করে চুল উঠে আসছে। আপনি কি এমন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছেন? চুল পড়া কমাতে, আপনাকে স্বাস্থ্যকর খাবারের অভ্যাসের পাশাপাশি চুলের যত্নের একটি প্রাথমিক রুটিন বজায় রাখতে হবে। প্রাকৃতিকভাবে চুল পড়ার হার কমাতে অ্যান্টি হেয়ার ফল মাস্ক খুবই কার্যকরী। তাহলে চলুন আজকের আর্টিকেল থ্যেকে জেনে নেই চুল পড়া কমাতে আপনি কোন কোন কাজগুলো করতে পারেন।

এক্সেস হেয়ার ফলের সল্যুশন 

আপনি যদি প্রতিদিন ১০০/১২০-এর বেশি চুল পড়া অনুভব করেন এবং চুল পড়া কোনোভাবেই কমতে না থাকে, তাহলে আপনাকে অবশ্যই একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। চুল পড়ার কারণ হতে পারে এমন কোনো স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছেন কিনা তা পরীক্ষা করুন। তবে আপনার যদি কোনো স্বাস্থ্য সমস্যা না থাকে তবে চুল পড়া নিয়ন্ত্রণে কিছু হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করে দেখতে পারেন। হেয়ার মাস্ক চুলকে সুস্থ ও মজবুত করে। হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করা বেশ সহজ। সপ্তাহে অন্তত ১ দিন গোড়া থেকে শেষ পর্যন্ত মাস্ক লাগাতে হবে। তারপর শাওয়ার ক্যাপ দিয়ে চুল ঢেকে রাখুন এবং শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ২৫/৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন।

হেয়ার মাস্ক কিভাবে কাজ করে?

বিভিন্ন ন্যাচারাল ইনগ্রেডিয়েন্টস সমৃদ্ধ হওয়াতে হেয়ার মাস্ক চুলের যত্নে অনেক বেশি কার্যকর। এটি একটি DIY হোমমেড হতে পারে, আবার এটি প্যাকেজযুক্ত রেডিমেড মাস্কও হতে পারে।হেয়ার মাস্ক আপনার চুলকে মজবুত, নরম ও ময়েশ্চারাইজ করে। চুলের বাড়তি যত্ন নিতে এর জুড়ি নেই। চুলের বিভিন্ন সমস্যাকে লক্ষ্য করে বিভিন্ন হেয়ার মাস্ক পাওয়া যায় এবং বাড়িতেও প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে মাস্ক তৈরি করা যায়। চুলের ধরন বুঝে সপ্তাহে অন্তত ১ দিন হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করলে দ্রুত চুলে স্বাস্থ্যকর পরিবর্তন দেখা যায়।

চুল পড়া কন্ট্রোলে আনতে ৫টি হেয়ার মাস্ক

১. ডিম দিয়ে হেয়ার মাস্ক তৈরি

ডিম দিয়ে হেয়ার মাস্ক তৈরি করতে দরকার উপকরণ-

  • ডিম
  • হাফ কাপ দুধ
  • দুই টেবিল চামচ লেবুর রস
  • সামান্য অলিভ অয়েল

ডিমের সঙ্গে সবগুলো উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে, চুলে লাগিয়ে নিন। ডিমে প্রোটিন থাকে যা চুলের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। চুলকে করে তোলে প্রাণবন্ত। তাই ডিম দিয়ে তৈরি এই হেয়ার মাস্ক সব ধরনের চুলে ব্যবহার করতে পারেন, কারন এটি চুলে দারুণ ভাবে কাজ করে। চুল পড়া কমাতে এবং চুলের রুক্ষতা কমাতে এই প্রোটিন ট্রিটমেন্ট মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন।

২. হেয়ার ফল নিয়ন্ত্রণে টক দইয়ের মাস্ক

এই হেয়ার মাস্কটি তৈরি করতে আপনার যা লাগবে-

  • টক দই (চুলের দৈর্ঘ্য অনুযায়ী)
  • এক টেবিল চামচ আপেল সিডার ভিনেগার
  • মধু

সব উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে চুলের আগা থেকে গোড়া পর্যন্ত ভালোভাবে লাগাতে হবে। আপেল সিডার ভিনেগারে অ্যান্টি-ফাঙ্গাল, অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। টক দই এবং মধু চুলের আর্দ্রতা স্তরের ভারসাম্য বজায় রাখে, পাশাপাশি চুলের ফলিকলগুলিকে শক্তিশালী করে এবং চুলের বাউন্সিনেস ফিরিয়ে আনে।

৩. স্কিন ক্যাফে হেয়ার ফল ট্রিটমেন্ট (Skin Cafe HairFall Treatment)

প্রাকৃতিক উপাদান দিয়ে তৈরি রেডিমেড হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করতে চাইলে স্কিন ক্যাফে হেয়ার ফল ট্রিটমেন্ট চেষ্টা করুন। এই মাস্কটি সপ্তাহে একদিন ব্যবহার করলে এক্সেস হেয়ার ফলের প্রবলেম অনেকটাই কমে আসবে। আমি নিজেই উপকৃত হয়েছি, এখন এই মাস্ক আমার হলি গ্রেইল প্রোডাক্ট। পাতলা রুক্ষ চুল ধীরে ধীরে স্বাস্থ্যকর, ঘন, শক্তিশালী এবং আরও প্রাণবন্ত হয়ে উঠবে। এটি চুল পড়া বন্ধ করতে এবং নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করবে। এই মাস্কটি তৈরি করতে হবে-

  • স্কিন ক্যাফে হেয়ার ফল ট্রিটমেন্ট পাউডার (চুলের লেন্থ অনুযায়ী)
  • টকদই
  • ডিম

সমস্ত উপাদান ভালভাবে মিশ্রিত করুন এবং মাস্কটি চুলের প্রান্ত থেকে গোড়া পর্যন্ত লাগান এবং ৪০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার লাগান। আপনি প্রথম ব্যবহারের পরে পার্থক্য বুঝতে পারবেন। এই হেয়ার মাস্ক চুলের যত্নে অতুলনীয় কারণ এতে রয়েছে শিকাকাই, হেনা, আমলা ইত্যাদি উপাদান।

৪. কলার হেয়ার মাস্ক

কলা দিয়ে তৈরি হেয়ার মাস্ক চুল পড়া কমাতে খুবই কার্যকরী। এই মাস্কটি তৈরি করতে হবে-

  • পাকা কলা
  • সামান্য নারকেল তেল

কলা ভালোভাবে চটকে নিয়ে অথবা ব্লেন্ড করে স্মুথ পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর চুলে মাস্কটি প্রয়োগ করুন এবং ৩০ মিনিট অপেক্ষা করুন। তারপর শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনার লাগান। নারকেল তেল চুলের ফলিকলকে শক্তিশালী করে। কলায় প্রচুর পরিমাণে পটাসিয়াম, ভিটামিন এবং প্রাকৃতিক তেল রয়েছে, যা চুলের ফলিকল কমাতে এবং চুলের বৃদ্ধি বাড়াতে খুবই কার্যকর। তাছাড়া আপনি Loreal এর  Loreal Hair Spa Deep Nourishing Creambath এই হেয়ার মাস্কটি ব্যবহার করে পারেন।

৫. ক্যাস্টর অয়েল হেয়ার মাস্ক

চুল পড়া কমাতে এবং নতুন চুল গজাতে ক্যাস্টর অয়েলের নাম আমরা প্রায় সবাই জানি। এই হেয়ার মাস্কটি তৈরি করতে যা যা দরকার-

  • ক্যাস্টর অয়েল দুই টেবিল চামচ
  • দুই টেবিল চামচ নারকেল তেল
  • অ্যালোভেরা জেল

সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর কাঠের চিরুনি দিয়ে চুল ভালো করে আঁচড়ে নিন এবং চুলের মাঝে একটি সেকশন তৈরি করে হেয়ার মাস্ক লাগাতে হবে। ২০/২৫ মিনিট পর ঠান্ডা পানি দিয়ে শ্যাম্পু করুন। এই হেয়ার মাস্ক চুলে পুষ্টি জোগায় এবং চুল পড়া বন্ধ করার পাশাপাশি চুলের আগা ফাটা রোধ করে।

এখন বুঝতেই পারছেন নিয়মিত চুলের যত্নের পাশাপাশি সপ্তাহে একবার হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করা কতটা জরুরি! এটি চুলকে পুষ্টি জোগায় এবং স্বাস্থ্যকর করে তোলে। এছাড়াও চুলের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান রয়েছে। চুল পড়া নিয়ে চিন্তা না করে আপনার চুলের যত্নের রুটিনে আপনার প্রিয় হেয়ার মাস্ক যুক্ত করুন।তাছড়া আপনি যদি অরিজিনাল হেয়ার কেয়ার প্রোডাক্ট কিনতে চান, তাহলে ভিজিট করুন সাজকন্যা.কম – এ

    Leave a Reply

    Your email address will not be published. Required fields are marked *

    Main Menu